সাম্প্রতিক পোস্ট

কোরবানির পশুর হাড়গোড় খুর শিং সবই মূল্যবান

17 আগস্ট 2018  ট্যাগ:  প্রবন্ধ

হাজারীবাগের ঠিক শেষ প্রান্তে মোহাম্মদপুর বেড়িবাঁধের কাছাকাছি কয়েকটি টিনের ঘর। এর ভেতরে ড্রামে ড্রামে কি যেন নাড়াচাড়া করা হচ্ছে। কাছেই গিয়ে জানা গেল, এগুলো হচ্ছে গরুর চর্বি। আগুনে এসব চর্বি গলিয়ে বিশাল ড্রামে ভরা হচ্ছে। হাসি দিয়ে সেখানে এক যুবক বলল, বাংলা সাবান (কাপড় কাঁচা) থেকে শুরু করে চকলেটেও দেয়া হয় এসব চর্বি। নামমাত্র মূল্যে কেনা এসব চর্বি চড়া দামে বড় বড় কোম্পানি কিনে নিয়ে যায় ।

এ দিকে একই ঘরের পাশে রয়েছে গবাদি পশুর হাড়গোড়, খুর, শিংয়ের বিশাল স্তূপ। জানতে চাইলে সেই যুবকই জানাল, আরে ভাই পশুর হাড়গোড়, খুর, শিং কোনো কিছুই ফেলনা না। এগুলোও মেলা দামি। বিদেশে রফতানি হয়। দেশেও হাজার হাজার মানুষ এসব বিক্রি করে জীবনযাপন করছে।

1.কোরবানির পশুর হাড়গোড় খুর শিং সবই মূল্যবান

http://old.dailynayadiganta.com/detail/news/153853

2.কোরবানির পশুর হাড়-চর্বির জমজমাট ব্যবসা

https://www.dailyinqilab.com/article/38626/%E0%A6%95%E0%A7%8B%E0%A6%B0%E0%A6%AC%E0%A6%BE%E0%A6%A8%E0%A6%BF%E0%A6%B0-%E0%A6%AA%E0%A6%B6%E0%A7%81%E0%A6%B0-%E0%A6%B9%E0%A6%BE%E0%A7%9C-%E0%A6%9A%E0%A6%B0%E0%A7%8D%E0%A6%AC%E0%A6%BF%E0%A6%B0-%E0%A6%9C%E0%A6%AE%E0%A6%9C%E0%A6%AE%E0%A6%BE%E0%A6%9F-%E0%A6%AC%E0%A7%8D%E0%A6%AF%E0%A6%AC%E0%A6%B8%E0%A6%BE

3.কোরবানির পশুর উচ্ছিষ্ট ২০০ কোটি টাকা রপ্তানি আয়ের সম্ভাবনা

https://www.bdsuccess.org/2017/09/10/15/25/22068

4.পশুর উচ্ছিষ্ট থেকে কোটি টাকা

http://www.bhorerkagoj.net/online/2015/09/29/123799.php

5.কোরবানির পশুর উচ্ছিষ্ট রপ্তানিতে হাজার কোটি টাকা

http://www.arthosuchak.com/archives/109987/%E0%A6%95%E0%A7%8B%E0%A6%B0%E0%A6%AC%E0%A6%BE%E0%A6%A8%E0%A7%80%E0%A6%B0-%E0%A6%AA%E0%A6%B6%E0%A7%81%E0%A6%B0-%E0%A6%89%E0%A6%9A%E0%A7%8D%E0%A6%9B%E0%A6%BF%E0%A6%B7%E0%A7%8D%E0%A6%9F-%E0%A6%B0/

 

...

মন্তব্য: 0  |  বিস্তারিত পড়ুন

 


মুসলমান, মুমিন ও মুহসিন!

14 আগস্ট 2018  ট্যাগ:  প্রবন্ধ

সাধারণভাবে আমরা উল্লিখিত তিনটির মাঝে কোন প্রকার পার্থক্য ছাড়াই  ব্যবহার করে থাকি। উপরন্তু উলামায়ে কেরাম তিনটির মাঝে কিছু পার্থক্যের বর্ণনা দিয়েছেন যা নিম্নে তুলে ধরা হলো।

 মুসলমান: আল্লাহ তাআলার উপর ঈমান ও রসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি  ও সাল্লামের রেসালতের উপর বিশ্বাস স্থাপন করতঃ বাহ্যিক আমলসমূহ (যেমন নামজ, রোজা, হজ্ব, যাকাত) যারা করেন তাদের মুসলমান বলা হয়।

মুমিন: উল্লিখিত গুণগুলোর সাথে সাথে আরো কিছু বিষয় যোগ হবে।  যেমন:

(ক) ফেরেশতাদের উপর ঈমান আনা।

(খ) মহান আল্লাহ তাআলার পক্ষ থেকে নাযিলকৃত কিতাবসমূহের  প্রতি ঈমান আনা

(গ) মহান আল্লাহ তাআলা মানব জাতির হেদায়েতের জন্য যত নবী-রসূলদের দুনিয়ায় পাঠিয়েছেন তাদের উপর ঈমান আনা।

(ঘ) আখেরাতের উপর ঈমান আনা।

(ঙ) তাকদীরের ভালো-মন্দ মহান আল্লাহ তাআলার পক্ষ হতে হয়, এর উপর ঈমান আনা।

(চ) এবং মরণের পর পুনরুত্থানের(মানুষ মারা যাবার পর কিয়ামতের দিন পুনরায় জীবন লাভ করাকে বুঝায়) উপর ঈমান আনা। সার কথা বাহ্যিক  আমলগত দিকটাকে ইসলাম বলে, আর ভিতরের অর্ন্তরগত বিশ্বাসটাকে ঈমান বলে। তবে এখানে আমাদের একটা মৌলিক কথা স্মরণ রাখা দরকার তা হচ্ছে, ...

মন্তব্য: 0  |  বিস্তারিত পড়ুন

 


রসূল (সা.) নুরের তৈরি না মাটির?

10 আগস্ট 2018  ট্যাগ:  প্রবন্ধ

ইয়াহুদী-নাসারাদের ষড়যন্ত্র ক্রমানন্বয়ে মুসলামানেদের ঈমান আক্বীদার উপর চরম ভাবে আঘাত হানছে। এরা  মুসলমানদের ঈমান-আমল ধ্বংসের পেছনে নিজেদের  অর্থ-সম্পদ ব্যয় করতে কুন্ঠাবোধ করেনা। তাদের এ ষড়যন্ত্রে তারা যে সফল, তার প্রমাণ হচ্ছে তারা ইতিমধ্যে মাজারপূজারী বিদআতীদেরকে নিজেদের বসে নিয়ে এসেছে। যে বাংলাদেশ ৯৫% মানুষ মুসলমান, সেখনে মাজারপূজারী বিদআতীদের দৌরাত্ব দেখে আক্কেল গুড়–ম হয়ে যায়। এরা নবী প্রেম ও ওলীদের প্রতি মহব্বতের নামে মুসলমানদের নির্ভাজাল তাওহীদী আক্বীদার মধ্যে ইয়াহুদী-নাসারাদের মত শিরক প্রবিষ্ট করে দিচ্ছে। এরই একটি উদাহরণ হচ্ছে তারা আমাদের নবীজীকে আল্লাহর সমপর্যায়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য নানারূপ শিরকী কথা ব্যাপক প্রচার চালিয়ে যাচ্ছে। “নবীজী হাজির-নাজির, তিনি মাটির মানুষ না বরং আল্লাহর নূরের একটি অংশ” এ ধরণের আরো অনেক গর্হিত কথা তারা মিলাদুন্নবীর মিছিলে মিটিংএ অবলিলা ক্রমে স্লোাগান দিয়ে চলেছে।

 এ ব্যাপারে কোরআন সুস্পষ্ট সমাধান দিয়েছে যে, নবী মাটির তৈরি, তিনি নূরের তৈরি নন। এটাই হচ্ছে খাঁটি আহলে সুন্নত ওয়ালজামাআতের আক্বীদা। কিন্তু মধুর বোতলে বিষ বিক্রি করার মত মাজারপূজারী বিদআতীরা নিজেদেরকে আহলে সুন্নত ওয়ালজামাআতের ...

মন্তব্য: 0  |  বিস্তারিত পড়ুন

 


প্রাচ্যের উপহার

10 আগস্ট 2018  ট্যাগ:  প্রবন্ধ


নশ্বর এ পৃথিবীতে মানুষের যাবতীয় সমস্যার সঠিক সমাধান দিতে পারে একমাত্র ইসলাম। ইসলামে রয়েছে অনুপম আদর্শ-সভ্যতা ও নৈতিকতার সফল শিক্ষা, যা মানুষে যবাতীয় সমস্যা সমাধানের একমাত্র সোপান।
ইসলাম ছাড়া অন্যান্য ধর্মের ধজাধারীরা  মানুষের সমস্যা সমাধানে যতই হাঁক-ডাক মারুক না কেন, প্রকৃত পক্ষে তাদেই শিক্ষা, সভ্যতা-সংস্কৃতি মানুষের চরম শত্রু এবং তারাই মানবতাকে ধ্বংসের অতলগহবরে নিক্ষেপ করেছে। যে সমস্ত সভ্যতা-সংস্কৃতির আঘাতে আজকে মানবতা অধঃপতন ও অবনতির চুড়ান্ত সীমায় উপনীত হয়েছে এবং তা মরণ যন্ত্রনায় কাতরাচ্ছে, এর মধ্যে উল্লেখ যোগ্য হচ্ছে প্রাচ্যের নগ্নসভ্যতা।  
পাশ্চাত্যের সভ্যতায় রয়েছে উচ্ছশৃঙ্খল যৌনচারিতা, নারী পুুরুষের অবাধ মেলামেশা ও যৌবনকে যত্রতত্র ব্যাবহারের সর্বপরি সুযোগ সুবিধা। তাদের শিক্ষা ও নোংরা সভ্যতা, সমকামীতার মত জঘন্য কাজের বিল পাশ করা থেকে তাদের বাধা প্রদান করেনা। তাদের এ অসভ্যতা পশু পকৃতিকেও হার মানায়া। কারন পাসবিক জীবনেও এ কর্ম কখনও কারো  দৃষ্টিগোচর হয়েছেকি না তা আমার জানা নাই  । এদের নগ্নসভ্যতা, মানবতার ভিতকে নড়বড়ে করে দিয়েছে, চুরমাচুর করে দিয়েছে এ বৃক্ষের কমল ...

মন্তব্য: 0  |  বিস্তারিত পড়ুন

 


প্রিয় নবীজীর প্রিয় আমল।

10 আগস্ট 2018  ট্যাগ:  প্রবন্ধ

প্রশ্ন: আপনি কি নবজাত শিশুর ন্যায় নিষ্পাপ হতে চান?

উত্তর: নবী কারীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেন: যে ব্যাক্তি এই (কাবা) ঘরে   (হজ্ব বা উমরার জন্য) আসবে, অতঃপর সে স্ত্রী সহবাস করবেনা অথবা এ সংক্রান্ত কোন কথা-বার্তাও বলবেনা, তাহলে সে নবজাতক শিশুর ন্যায় নিষ্পাপ হয়ে ফিরে যাবে। (মুসলিম)

 প্রশ্ন: আপনি কি চান আপনার জীবনের পেছনের সমস্ত গুনাহ মার্জনা হয়ে যাক?

উত্তর: নবী কারীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেন: যদি কোন ব্যাক্তি আমার এ ওজুর মত ওজু করে দুই রাকাত নামাজ এমন ভাবে আদায় করে যে, সে নামাজ ছাড়া মনে মনে অন্য কিছু চিন্তা-ভাবনা করেনা। হাদীসের অন্য বর্ণনায় এসেছে যে, সে নামাজে উদাসীন হয়না, তাহলে তার বিগত জীবনের গুনাহ ক্ষমা করে দেওয়া হবে।(বুখারী ও মুসলিম)

প্রশ্ন: আপনি কি চান পৃথিবীর সমস্ত মানুষের সংখ্যার পরিমাণ সওয়াব কামাই করতে?

উত্তর: নবী কারীম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেন: যে ব্যক্তি সকল মুমিন নারী ও পুরুষের গুনাহের জন্য ক্ষমা প্রার্থনা করবে, আল্লাহ পাক তার জন্য প্রত্যেক মুমিন নর ও  নারীর ...

মন্তব্য: 0  |  বিস্তারিত পড়ুন