আমল

যিল-হজ্ব মাসের প্রথম দশকের আমল ও ফজিলত

02 আগস্ট  ট্যাগ:  প্রবন্ধ

হযরত ইবনে আব্বাস (রা.) বর্ণনা করেন যে, রসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, দিনসমূহের মধ্যে এমন কোন দিন নাই যেদিনগুলোর আমল আল্লাহর নিকট এই দশ দিন (অর্থাৎ; যিল-হজ্জ মাসের প্রথম ১০ দিন) অপেক্ষা অধিক উত্তম। সাহাবায়ে কেরাম জিজ্ঞাসা করলেন, ওগো আল্লাহর নবী! আল্লাহর রাস্তায় জিহাদও কি এই দিনগুলির আমলের চেয়ে প্রিয় নয়? রসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বললেন, আল্লাহর রাস্তায় জিহাদও নয়। তবে হাঁ, যদি কোন ব্যক্তি তার জান-মাল নিয়ে বাড়ি থেকে বের হয় অতঃপর এসবের কিছুই নিয়ে সে বাড়ি না ফেরে (অর্থাৎ; তার সমস্ত মাল আল্লাহর রাস্তায় ব্যয় করে এবং সে নিজেও শহীদ হয়ে যায়) তাহলে এমন জিহাদ অবশ্য এই দিনগুলির আমল হতে উত্তম হবে। رواه البخاري))

হযরত ইবনে উমার (রা.) বলেন, রসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, এমন কোন দিন নাই যে দিনের আমল আল্লাহর নিকট এই দশ দিনের আমলের চেয়ে অধিক প্রিয় ও মর্যাদাবান। (অর্থাৎ; এই দশ দিনের আমল অন্য কোন দিনের আমলের সাথে তুলনা যোগ্য নয়) ...

মন্তব্য: 0  |  বিস্তারিত পড়ুন

 


কুরবানীর গুরুত্ব ও তাৎপর্য সংক্ষিপ্ত ইতিহাস:

02 আগস্ট  ট্যাগ:  প্রবন্ধ

১                                       
মহান প্রেমের চরম পরাকাষ্ঠা প্রদর্শনের দারপ্রান্তে আমরা উপস্থিত, নিজেদের সবচে প্রিয় বস্তুটি করুনাময়ের উদ্দেশ্যে উৎসর্গ করার অমিয় শিক্ষা নিয়ে এল পবিত্র কুরবানী। আল্লাহর জন্য কুরবানী করা হযরত আদম আ. এর যামানা থেকেই প্রচলিত।
ঐ সময় মানুষ কুরবানী করে মাঠে রেখে আসত, যার কুরবানী আল্লাহর দরবারে কবূল হত আসমান থেকে আগুন এসে তার কুরবানী করা পশু জ্বালিয়ে দিত।
আল্লাহ তা’আলা তাঁর প্রিয় বান্দাদের থেকে কুরবানী নিতেন। সে ধারাবাহিকতায় জাতির পিতা হযরত ইবরাহীম আ. কে আদেশ করেছিলেন তাঁর প্রাণাধিক পুত্র ইসমাইলকে কুরবানী করার।
জাতির পিতা হযরত ইবরাহীম আ. কঠোর পরীক্ষার সম্মুখীন হয়েছিলেন, তিনি সে পরীক্ষা শতভাগ উতীর্ণ হয়েছিলেন। মহান আল্লাহ তা’আলা খলীলুল্লাহর সেই অমর প্রেম কাহিনীকে আমলী রূপ দিয়ে আমাদের মাঝে জীবন্ত করে রেখেছেন। খলীলুল্লাহ হযরত ইবরাহীম আ. ইরাকের অধিবাসী ছিলেন। সেখান থেকে হিযরত করে শাম-সিরীয়ায় চলে আসেন, সেখানেই জন্মগ্রহণ করেন তাঁর প্রাণাধিকপুত্র হযরত ঈসমাইল আ.। স্তন্যপায়ী ঈসমাইলকে নিয়ে সুদূর মক্কায় হিযরতের ...

মন্তব্য: 0  |  বিস্তারিত পড়ুন

 


সাদাকাতুল-ফিতর ও যাকাত

09 সেপ্টেম্বর  ট্যাগ:  প্রবন্ধ

রোযাদার যেন তার  রোযাকে বেহুদা ও অশ্লীল কথা বার্তা ও গর্হিত আচরণ থেকে পবিত্র করতে পারেন এবং  ঈদের আনন্দে ধনীদের সাথে গরীব-দুখীরাও যেন শরীক হতে পারে- এ মহান দুইটি বিষয়ের প্রতি লক্ষ্য রেখে সদাকাতুল-ফিতর ওয়াজীব করা হয়েছেহযরত ইবনে আব্বাস (রাঃ) থেকে বর্ণিত আছে, তিনি বলেন, রসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম সদাকাতুল-ফিতরকে ওয়াজিব করেছেন-রোযাকে বেহুদা ও অশ্লীল কথাবার্তা জনিত অপরাধ থেকে ও গর্হিত আচরণ থেকে পবিত্র করার উদ্দেশ্যে এবং মিসকিনদের খাদ্যের সুব্যবস্থার জন্যেযে ব্যক্তি  ঈদের নামাজের আগে তা আদায় করবে, তার জন্য তা কবুলকৃত যাকাত বলে গণ্য হবেআর যে ব্যক্তি ঈদের পরে তা আদায় করবে, তার জন্য তা একটি সাধারণ দান হিসাবে গণ্য হবে আবু দাউদ শরীফ

সদাকাতুল-ফিতর মুসলিম উম্মাহর একটি গুরুত্বপূর্ণ ইবাদত, যা ...

মন্তব্য: 0  |  বিস্তারিত পড়ুন

 


ফরজ নামায পরবর্তী যিক্রসমূহ

07 সেপ্টেম্বর  ট্যাগ:  প্রবন্ধ

ফরজ নামায পরবর্তী যিক্রসমূহ  প্রত্যেক মুসলমানের জন্য ফরজ নাময শেষে যে সমস্ত দোয়া পাঠ করা সুন্নত তা নিম্নে উল্লেখ করা হলো :

أستغفر الله    ৩ বার - আসতাগফিরুল্লাহ। আসতাগফিরুল্লাহ। আসতাগফিরুল্লাহ।

অর্থ : আমি আল্লাহর নিকট ক্ষমা প্রার্থনা করছি। অতঃপর নিম্নের দু’আগুলি ১ বার পড়বে :

اَللّهُمَّ أنْتَ السَّلاَمُ وَ مِنْكَ السَّلاَمُ تَبَارَكْتَ يَا ذَا الْجَلاَلِ و اْلإِكْرَامِ  

আল্লাহুম্মা আংতাস্ সালা-ম, ওয়া মিনকাস্ সালা-ম, তাবা-রকতা য়া যালজালা-লি ওয়াল ইকরা-ম। 

অর্থ : “হে আল্লাহ! তুমি শান্তি দাতা, আর তোমার পক্ষ থেকেই শান্তি বর্ষিত হয়, তুমি বরকতময়, হে মর্যাদাবান ও কল্যাণময়!” 

لا إِلهَ إِلا اللهُ وَحْدَهُ لا شَرِيْكَ لَهُ ؛ لَهُ الْمُلْكُ و َلَهُ الْحَمْدُ وَ هُوَ عَلَى كُلِّ شَيْئٍ قَدِيْرٌ ؛ لا حَوْلَ وَ لا قُوَّةَ إِلا بِالله ؛ لا إِلهَ إِلا اللهُ وَ لاَ نَعْبُدُ إِلا إِيَّاهُ ؛ لَهُ النِّعْمَةُ وَ لَهُ الْفَضْلُ وَ لَهُ الثَّنَاءُ الْحَسَنُ ؛ لا إِلهَ اِلا الله ُ مُخْلِصِيْنَ لَهُ الدِّيْنَ وَ لَوْ كَرِهَ الْكَافِرُوْنَ ؛ اَللّهُمَّ لا ...

মন্তব্য: 0  |  বিস্তারিত পড়ুন